1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. mahir1309@gmail.com : star mail24 : star mail24
  3. sayeed.fx@gmail.com : sayeed : Md Sayeed
  4. newsstarmail@gmail.com : Star Mail : Star Mail
হাবীব আহসানের ‘ইতিহাস স্মরণে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন | Starmail24
শিরোনাম :
খুলনায় র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সাবেক চেয়ারম্যান নিহত আজ পবিত্র আরাফাত দিবস ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ মালয়শিয়া প্রবাসী ড. ফয়জুল হকের দেশের বাড়ীতে ডাকাত দলের হামলা রায়হানকে ফেরত পাঠাবে কিনা বিষয়টি মালয়েশিয়ান আইন এবং সরকারের সিদ্ধান্ত পথশিশুদের মধ্যে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের ঈদ উপহার বিতরণ করোনায় দেশে একদিনে ৫৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২২৭৫ রাঙ্গাকে সরিয়ে জাতীয় পার্টির মহাসচিব হলেন জিয়াউদ্দিন বাবলু করোনাকালে গুন্ডাপান্ডার গান ‘আইসোলেশন’ আমরা ক’জন মুজিব সেনা’র নতুন কমিটি গঠন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তাজউদ্দিন আহমেদের পরিবারের বিবৃতি (ভিডিও)




হাবীব আহসানের ‘ইতিহাস স্মরণে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

মোঃ আশিকুর রহমান,কালীগঞ্জ, ঝিনাইদহ
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

ঝিনাইদহ কালীগঞ্জের কৃতিসন্তান,বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপ বিজ্ঞান-বিষয়ক সম্পাদক খন্দকার হাবীব আহ্সানের লিখিত ‘ইতিহাস স্মরণে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। বুধবার ( ৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গ্রন্থ উন্মোচন মঞ্চে বইটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য, আগামী প্রকাশনীর প্রকাশক ওসমান গনি, ছাত্রলীগের প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক হায়দার মোহাম্মদ জিতু, সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক আসিফ তালুকদার, ক্রীড়া সম্পাদক আল আমিন সুজন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের নেতৃবৃন্দ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বিভিন্ন হল ইউনিটের নেতৃবৃন্দ এবং ডাকসু নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বইটির লেখক খন্দকার হাবীব আহ্সান বলেন, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সংগঠনের পক্ষ থেকে ইতিহাসের অনেককে শ্রদ্ধা করে, অনেক দিবসকে শ্রদ্ধা জানায়। অথচ ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যারা নতুন এসেছেন কিংবা রাজনীতিতে এখনো নবীন তারা এসব দিবস সম্পর্কে তেমন একটা জানেন না।

তিনি আরো বলেন, আবার অনেকে আছেন, যারা দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতি করার পরেও এসব বিষয়ে তেমন জ্ঞান রাখেন না। অনেকে আবার দিবসের প্রোগ্রামে উপস্থিত থাকলেও এবিষয়ে তারা তেমন একটা জানেন না। এটা আমার কাছে ব্যক্তিগতভাবে উপলব্ধি হয়েছে। পরবর্তীতে এ বিষয়ে কোনো সমন্বিত লেখা আছে কিনা আমি তা খুঁজতে থাকি। কিন্তু আমি দেখলাম এ বিষয়ে কোনো সমন্বিত লেখালেখি নাই। এমনকি কোনো বইও পেলাম না এ বিষয়ে। তখন আমি ভাবলাম, একটি বইয়ের মাধ্যমে জানা যেতে পারে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের এ দিবসগুলো সম্পর্কে। এরপর লিখলাম ‘ইতিহাস স্মরণে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ’ বই। বইটির মাধ্যমে ছাত্রলীগের পালনীয় দিবসগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানা বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য,‘ইতিহাস স্মরণে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ’ বইটি অমর একুশে বইমেলায় আগামী প্রকাশনীর প্যাভিলিয়ন ১নং ও মাতৃভূমি স্টলে পাওয়া যাবে।




এই বিভাগের আরো সংবাদ