12/11/2019 , ঢাকা

শৈলকুপা থানার ওসির প্রত্যাহার দাবিতে সাংবাদিকদের বিক্ষোভ মানববন্ধন


প্রকাশিত: 12/11/2019 02:48:29| আপডেট:

স্টার মেইল, ঝিনাইদহ: সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দায়েরের ঘটনায় ঝিনাইদহের শৈলকুপায় পুলিশের বিরুদ্ধে মানুষের ক্ষোভ ক্রমেই বাড়ছে। সর্বশেষ দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা ষড়যন্ত্রমূলক মামলা রেকর্ড করেছেন শৈলকুপা থানার ওসি বজলুর রহমান। এসবের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার দুপুরে শৈলকুপা প্রেসক্লাবের আয়োজনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে অবিলম্বে শৈলকুপা প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা ডিবিসি নিউজের জেলা প্রতিনিধি আব্দুর রহমান মিল্টন ও প্রেসক্লাবের সদস্য রামিম হাসানের নামে রেকর্ডকৃত মিথ্যা নারী নির্যাতন মামলা প্রত্যাহার দাবি করা হয়েছে। গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর সাংবাদিক মিল্টনের উপর হামলার ঘটনায় দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা থেকে রক্ষা পেতে হামলাকারী দুর্বৃত্তরা শৈলকুপা থানার ওসির যোগসাজসে এমন মিথ্যা মামলা সাজানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন সাংবাদিকরা।

এছাড়া শৈলকুপা থানার বিতর্কিত ওসির প্রত্যাহারে ৭ দিনের আন্দোলন কর্মসূচির ঘোষণা দেয়া হয়। মানববন্ধন বিক্ষোভ ছাড়াও প্রেসক্লাবের সংবাদকর্মীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলামের নিকট স্মারকলিপি পেশ করেন।

মানববন্ধন ও বিক্ষোভে শৈলকুপা প্রেসক্লাব সভাপতি এম হাসান মুসা, সাধারণ সম্পাদক শাহীন আক্তার পলাশ, প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক আজাদ রহমানসহ জেলার সংবাদকর্মীরা বক্তব্য রাখেন।

প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের ৭ দিনের ঘোষিত কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ, মানববন্ধন, স্মারকলিপি পেশ, কলম বিরতি, অনশন, মুখে কালো কাপড় প্রদর্শন, থানার ইতিবাচক সংবাদ বর্জন।

ভিডিও…


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

ঝিনাইদহ শিশুপার্কে ভবন নির্মাণে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

ঝিনাইদহ পৌরসভার পাবলিক পার্কের (শিশুপার্ক) মাঠে বহুতল ভবন নির্মাণের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন হাইকোর্ট।

ঝিনাইদহে আরো এক বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করলো বিএসএফ

সুমনের লাশ ফেরত আনার বিষয়ে বিএসএফের সঙ্গে যোগাযোগ করা চেষ্টা করা হচ্ছে বলে এ বিজিবি কর্মকর্তা জানান।

ঝিনাইদহে খাবারে বিষ দিয়ে পুরো পরিবারকে হত্যার চেষ্টা

কেউ শত্রুতাবশত এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে ধারণা করছে পরিবারটি। তারা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের খুঁজে বের করে শাস্তির ব্যবস্থা করার দাবি জানান।

মন্তব্য লিখুন...

Top