1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. mahir1309@gmail.com : Md Moniruzzaman : Md Moniruzzaman
  3. sayeed.fx@gmail.com : sayeed : Md Sayeed
  4. newsstarmail@gmail.com : Star Mail : Star Mail
শিরোনাম :
প্রবাসীর স্ত্রীকে ভাগিয়ে বিয়ে করলেন স্কুলশিক্ষক ইরাকে নতুন করে বিক্ষোভ,পুলিশসহ ৭ জন নিহত বিএন‌পির মনোনীত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের ওপর হামলা খালেদা জিয়া বমি করছেন বেশ কয়েকদিন ধরে: রিজভী নির্বাচনে অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ধানের শীষের প্রার্থীর বিজয় সুনিশ্চিত যৌন সম্পর্ক করা, সন্তান জন্ম দেওয়া- এর জন্য বিয়ের তো দরকার নেই! যৌন হয়রানি থেকে নারীদের সুরক্ষা দিতে আবিষ্কার অভিনব এক জুতা আরও ১৪ জেলার সহকারী প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট শেখ হাসিনার জনসভার আগে গুলি চালিয়ে ২৪ জনকে হত্যা মামলায় ৫ জনের ফাঁসি গভীর রাতে চাচির সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় ভাতিজাকে আটক

‘রাস্তা ছাড়েন ভাই, ডিআইজি স্যার বসে আছেন’

ষ্টার মেইল রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৯

স্টার মেইল, ঢাকা, ৭ ডিসেম্বর: রাজধানীতে পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় পুলিশের গাড়ির ধাক্কায় আহত হয়েছেন এক সাংবাদিক। আহত সাংবাদিক অনলাইন নিউজপোর্টাল বার্তা টােয়েন্টিফোরের অপরাধ বিষয়ক প্রতিবেদক শাহরিয়ার হাসান। শনিবার রাজধানীর ধানমণ্ডি ২৭ নম্বর সড়কে ঘটনা ঘটে। পরে বিষয়টি পুলিশ সদর দপ্তরে অবহিত করা হলে তদন্ত করে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আহত সাংবাদিক শাহরিয়ার হাসান বলেন, ধানমণ্ডি থেকে মোটরসাইকেল চালিয়ে অফিসে যাওয়ার সময় হঠাৎ করেই একটি পাজেরো গাড়ি আমার বাইকের পেছনে ধাক্কা দেয়। তখন আমার বাইক একটি বাসের সাথে ধাক্কা লেগে আমি রাস্তায় পড়ে যাই। আমি উঠে দাঁড়াতেই সেই গাড়িটি দ্রুত চলে যায়। পরবর্তীতে আমি গাড়িটির পিছু নিয়ে গতিরোধ করি এবং চালককে নামতে বলি।

এসময় চালক (পুলিশের ইউনিফর্ম পরিহিত) বলেন, ‘রাস্তা ছেড়ে সরে যান।’ পরে পুলিশের পোশাক পরা একজন গাড়ি থেকে নেমে বলেন কী হয়েছে? আমি বলি গাড়ির ভেতরে কে আছেন তাকে নামতে বলুন। এমন ভাবে গাড়ি চালাচ্ছেন আমি তো মারা যাচ্ছিলাম। ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিলেন দুঃখ প্রকাশ তো করতে পারতেন। চালক উত্তরে বলেন, ‘সরি কি বলবো। মরে তো যাননি। ভেতরে ডিআইজি স্যার। রাস্তা ছাড়েন।’ এই বলে আমার সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে পড়েন।

সাংবাদিক শাহরিয়ার হাসান। -ফাইল ছবি

শাহরিয়ার আরো বলেন, ‘ঘটনার বেশ কিছু সময় পর গাড়ি থেকে পুলিশ কর্মকর্তার ব্যক্তিগত অফিসার বেরিয়ে আমার মোটরসাইকেলের ছবি তুলেন।’ ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘রাস্তা ছাড়েন ভাই, ডিআইজি স্যার বসে আছেন।’

এসময় গাড়িটির চালক উল্টো বলেন, ‘ক্ষতিপূরণ দেন। না হয় ট্র্যাফিক ডাকি।’ উত্তরে আমি বলি, ‘ডিআইজি তো কি হয়েছে। গাড়ি চাপা দিয়ে মেরে ফেলবেন একটু সরি পর্যন্ত বলবেন না। নামতে বলেন, তার মুখটা দেখি।’

তখন আবারো আমাকে বলা হয়, ‘স্যার বিরক্ত হচ্ছেন ভাই, রাস্তা ছাড়েন।’

পরে পায়ে ব্যথা অনুভব হওয়ায় তাদের গাড়িটি ছেড়ে দেন শাহরিয়ার।

এ বিষয়ে পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (মিডিয়া) মীর সোহেল রানা স্টার মেইলকে বলেন, ‘সাংবাদিকের সঙ্গে এমন আচরণ দুঃখজনক। আমরা গাড়ির নম্বর পেয়েছি। ওই গাড়িতে কে ছিল বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

এই বিভাগের আরো সংবাদ