1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. mahir1309@gmail.com : star mail24 : star mail24
  3. sayeed.fx@gmail.com : sayeed : Md Sayeed
  4. newsstarmail@gmail.com : Star Mail : Star Mail
পবিত্র শবে কদর আজ | Starmail24
শিরোনাম :
ঝিনাইদহে গাঁজার গাছসহ ছাত্রলীগ নেতা আটক মালয়েশিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার চাচী ও সাবেক ডেপুটি স্পিকার স্মরণে দোয়া মাহফিল বিশ্বসেরা গবেষকের তালিকায় বাংলাদেশি সাঈদুর রৌমারীতে নিজস্ব অর্থায়নে ২০০ হাত লম্বা বাঁশের সাঁকো মেরামত ফ্রান্সের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপের দাবি ঝিনাইদহের ভাষা সৈনিক জাহিদ হোসেন মুসা আর নেই মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতির মায়ের মৃত্যুতে দোয়া মাহফিল ভার্চুয়াল মিট-আপে মালয়েশিয়ায় ৬টি কোম্পানির উদ্বোধন মালয়েশিয়ায় শুরু হচ্ছে বৈধকরণ প্রক্রিয়া, পাসপোর্ট দ্রুত পেতে বাংলাদেশ সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর লেবানন কেন্দ্রীয় আ’লীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন




পবিত্র শবে কদর আজ

স্টার মেইল ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২০ মে, ২০২০

আজ বুধবার ২৬ রমজানের দিবাগত রাত পবিত্র লাইলাতুল কদর যা হাজার মাসের চেয়ে উত্তম রাত। একে বলা হয়, মহিমান্বিত শবেকদর। এ রাতে পবিত্র কোরআন নাজিল হয়েছে। এ রাতের মহিমা বর্ণনা করা হয়েছে কোরআন শরিফে ‘আল-কদর’ সূরায়। মুসলিম উম্মাহর কাছে শবেকদর অত্যন্ত মর্যাদা ও বরকতময় একটি রাত। প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনার মহামারীকালে এবার ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের জীবনে এসেছে এ কদরের পবিত্র রাত। বরকতময় এ রাতে অন্যবারের মতো মসজিদ, খানকায় নেওয়া হয়নি বিশেষ কোনো উদ্যোগ। তবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলমান তারাবিহ নামাজ শেষে বিশেষ দোয়া হবে মসজিদে মসজিদে।

ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা নফল ইবাদত, কোরআন তিলাওয়াত ও জিকির-আসকারের মধ্যদিয়ে মহান আল্লাহর দরবারে গুনাহ মাফের জন্য প্রার্থনা করে রাতটি অতিবাহিত করবেন। মহান আল্লাহ পবিত্র কোরআনের সূরা কদরে ঘোষণা দেন, ‘নিশ্চয়ই ইহা অবতীর্ণ করেছি মহিমান্বিত রাতে’।

আর মহিমান্বিত এ রাত সম্পর্কে তুমি জান কী? মহিমান্বিত রাত হাজার মাস অপেক্ষা উত্তম। ওই রাতে ফিরিশতারা ও রুহ অবতীর্ণ হয় প্রত্যেক কাজে, তাদের রবের অনুমতি ক্রমে। শান্তিই শান্তি! সেই রাত ফজরের আবির্ভাব পর্যন্ত।’

হাদিসে বর্ণিত হয়েছে, ২০ রমজানের পর যে কোনো বিজোড় রাতে শবে কদর হতে পারে। তবে সাধারণভাবে ২৬ রমজানের দিবাগত রাতেই লাইলাতুল কদর আসে বলে মশহুর আলেমদের অভিমত। এ রাতে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর অনুসারীদের সম্মান বৃদ্ধি করা হয় এবং মানবজাতির ভাগ্য পুনর্নির্ধারণ করা হয়।




এই বিভাগের আরো সংবাদ