23/10/2019 , ঢাকা

টেস্ট অধিনায়কত্ব নিতে প্রস্তুত মাহমুদউল্লাহ


প্রকাশিত: 23/10/2019 20:05:45| আপডেট:

স্টার মেইল ডেস্ক: ‘অধিনায়কত্ব যদি না করতে হয়, আমার জন্য তা সবচেয়ে ভালো হবে। আমার কাছে মনে হয় ক্রিকেটের জন্যও ভালো হবে। আর নেতৃত্ব যদি দিতেই হয় তাহলে অবশ্যই অনেক কিছু নিয়ে আলোচনা করার ব্যাপার আছে’, চট্টগ্রাম টেস্টে হারের পর টেস্ট অধিনায়কত্ব নিয়ে এভাবেই বলেছিলেন সাকিব আল হাসান। দলের বর্তমান অবস্থার কারণে অনেকটা বাধ্য হয়ে নেতৃত্ব দিতে হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

টেস্ট অধিনায়কের যখন দায়িত্ব নিয়ে এমন অনীহা সেক্ষেত্রে নতুন কাউকে দায়িত্ব দেওয়ার বিষয়ে কথা উঠতেই পারে। সিনিয়রদের মধ্যে মুশফিকুর রহিমও দায়িত্বে নিতে চান না। বাকি আছেন মাহমুদউল্লাহ। সাদা পোশাকে নেতৃত্ব নিয়ে কীভাবে দেখেন এই অলরান্ডার?

মঙ্গলবার ত্রিদেশীয় সিরিজ শেষে জানতে চাওয়া হলে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘আসলে কোনো সময় যদি তেমন (টেস্ট অধিনায়কত্ব) চ্যালেঞ্জ বা দায়িত্ব আসে, আমি সেটা নিতে প্রস্তুত। এখনকার নেতৃত্ব নিয়ে আমার কিছু বলার নেই। আমার ওপর আসলে অবশ্যই আমি সেটা পালন করব।’

ঘরের মাঠে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হলে শিরোপা ভাগাভাগি করে নেয় বাংলাদেশ-আফগানিস্তান। ক্রিকেটারদের জন্য কিছুটা হলেও আক্ষেপের। কিন্তু দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করেও ম্যাচ দেখতে না পারার আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় দর্শকদের।

দর্শকদের আক্ষেপ পুড়িয়েছে ক্রিকেটারদেরও। এ ব্যাপারে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘আমরা যখন ড্রেসিং রুমে বসে ছিলাম, বৃষ্টি পড়ছিল। আমি দেখছিলাম যে কিছু ছোট ছোট বাচ্চা বৃষ্টিতে ভিজছে। তখন একটু আফসোস লাগছিল যে ম্যাচটি হলে ভালো হতো, ওরা বৃষ্টিতে ভিজতো না। বাচ্চাদের জন্য খারাপ লাগছিল যে ওরা অনেক আশা নিয়ে এসেছে। আরো অনেকে এমন আশা করে এসেছিল। ম্যাচটি হয়নি, এর জন্য আসলে আফসোসটা বেশি।’

শিরোপা জয়ের স্বাদ পেলেও পুরো টি-টোয়েন্টি সিরিজে খুব একটা ভালো পারফর্ম করেনি বাংলাদেশ দল। মাহমুদউল্লাহ্ মনে করেন ভুলগুলো বিবেচনায় নিয়ে সামনের দিকে কাজ করলে এই অবস্থা থেকে স্বাগতিকরা বেরিয়ে আসবে, ‘বেশ কয়েকটি ম্যাচে ১৩-১৪ ওভার কিংবা ১৫ ওভারের সময় আমাদের ছয়, সাত উইকেট চলে গিয়েছিল। এই বিষয়গুলো নিয়ে কোচও কথা বলেছে, সাকিবও কথা বলেছে। গ্রুপ হিসেবেও কথা বলেছি। দিন শেষে আমাদেরও অনেক কিছু করার আছে। অনুশীলনে নিজেকে আরো পরিণত করা ও সঠিক পরিকল্পনা গ্রহণ করা। আমাদের যেকোনো কিছুতে আরো দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে হবে, আপনি কোন বোলারকে ব্যবহার করছেন, কোন সময়টায় বিশেষ করে, দল কি চাচ্ছে। এই জিনিসগুলো অনেক সময় বিবেচনা করতে হয়। এই জিনিসগুলো নিয়ে আমাদের মনে হয় আরো কাজ করতে হবে। মানসিক ব্যাপারগুলো আছে এবং আমার মনে হয় ভারতের সঙ্গে যে ম্যাচ আছে তার আগে ভুলগুলো নিয়ে কাজ করতে হবে। নাহলে তাদের হারানো বেশ কঠিন হবে আমাদের জন্য।’

অবশ্য পুরো সিরিজে নতুনদের পারফরম্যান্স নিয়ে বেশ সন্তুষ্ট অভিজ্ঞ এই অলরাউন্ডার। আফিফ-বিপ্লবের প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে বিপ্লব ও আফিফের প্রতি খুবই সন্তুষ্ট। আফিফ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দারুণ ব্যাটিং করেছে। আমি তাকে ভালোভাবে চিনি। ওর মধ্যে যে সম্ভাবনা আছে সেটি ধরে রাখবে। বিপ্লব তরুণ হিসেবে প্রথম ম্যাচে খুব ভালো বোল করেছে। তাছাড়া সাইফউদ্দিন, মুস্তাফিজ ও সাকিব অসাধারণ খেলেছে।’

সব মিলিয়ে পুরো সিরিজে আফগানিস্তানের কাছ থেকে কতটুকু শিখেছে বাংলাদেশ? মাহমুদউল্লাহর উত্তর, ‘আমার মনে হয়না আফগানিস্তানের কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে। আমাদের ভুলের পরিমাণ বেশি ছিল। সেই কারণে ফলাফলগুলো তেমন ভালো হয়নি। তবে ওদের ক্রেডিট দিতে হবে, ওরা ভালো ক্রিকেট খেলেছে। একই সঙ্গে আমরা খুব বাজে ক্রিকেট খেলেছি।’


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

বেতন বৈষম্য নিরসনে সরকারকে সময় বেঁধে দিলেন প্রাথমিক শিক্ষকরা

বেতন বাড়িয়ে বৈষম্য নিরসন দাবিতে আন্দোলনরত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা দাবি পূরণের জন্য সরকারকে সময়সীমা বেঁধে দিয়েছেন।

কোন স্তরের কত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হলো

এমপিওভুক্তির নতুন নীতিমালা বাতিল করে পুরোনো নিয়মে স্বীকৃতি পাওয়া সব বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্তির দাবিতে মঙ্গলবারও আন্দোলনে ছিলেন শিক্ষক-কর্মচারীরা।

নতুন এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী যা যা বললেন

বুধবার (২৩ অক্টোবর) গণভবনে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নতুন এমপিওভুক্তির ঘোষণা দেওয়ার সময় এসব কথা বলেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন...

Top