22/11/2019 , ঢাকা

জাতীয় দিবসগুলো শিক্ষকদের কর্মদিবস হিসেবে গণ্য হোক


প্রকাশিত: 22/11/2019 10:59:49| আপডেট:
ফাইল ছবি

মাহফিজুর রহমান মামুন: প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে বার্ষিক ছুটি ৭৫ দিন। এই দিনগুলো প্রাথমিক শিক্ষকরা ছুটি ভোগ করে থাকেন। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর কর্তৃক নির্ধারিত ৭৫ দিনের বার্ষিক ছুটির তালিকায় জাতীয় দিবস যেমন শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস, স্বাধীনতা দিবস, নববর্ষ, জাতীয় শোক দিবস, বিজয় দিবস ইত্যাদি বন্ধের তালিকায় থাকলেও তার নিচে স্পষ্ট করে লেখা থাকে, এই দিবসগুলোতে বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করতে হবে।

প্রশ্ন হচ্ছে, বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে যেহেতু জাতীয় দিবসগুলো যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করতে হয়, তাহলে ঐ দিবসগুলো ছুটি হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে কেন? আমরা শিক্ষকরা জাতীয় দিবসগুলো যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করি এবং ভবিষ্যতেও যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করে যাবো।

তাই এই দিবসগুলো আমাদের কর্মদিবস হিসেবে গণ্য করা উচিত এবং জাতীয় দিবসের জন্য নির্ধারিত ঐ ছুটিগুলো আমাদের অন্য ছুটির সঙ্গে সমন্বয় করে নেওয়া হোক। এ বিষয়ে আমরা সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

মাহফিজুর রহমান মামুন,
বোদা, পঞ্চগড়।


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

৯ ভুয়া পরীক্ষার্থীসহ এক শিক্ষক আটক

শিক্ষক নুরুল ইসলামকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বিচারিক আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

ভবন, শ্রেণিকক্ষ বা শিক্ষার্থী কিছুই নেই, তবুও এমপিওভুক্ত কলেজ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হতে হলে বেশ কিছু নীতিমালা মানতে হয়। তবে এমন কিছু প্রতিষ্ঠান এবার এমপিওভুক্তির তালিকায় ঠাঁই পেয়েছে

প্রাথমিকের পরীক্ষায় ‘বহিষ্কার’ কেন অবৈধ নয়: হাই কোর্ট

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষায় শিশুদের বহিষ্কার করা কেন অবৈধ হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে হাই কোর্ট। সেই সঙ্গে

মন্তব্য লিখুন...

Top