16/11/2019 , ঢাকা

ছি! দেশটা কী নোংরা?


প্রকাশিত: 16/11/2019 00:52:33| আপডেট:

অহনা আনজুম: রাস্তায় বের হলেই আমরা নাক ছিটকাই, আমাদের দেশের মতো অপরিষ্কার আর কোনো দেশ নেই, ছি! এত ময়লা, এই সেই কত কথা। কথাটা যে মিথ্যে তাও নয়। আমাদের দেশে ময়লা আবর্জনা যত্রতত্র পড়ে থাকে, রাস্তাঘাট অপরিষ্কার থাকে। কিছু কিছু স্থান পরিষ্কার থাকলেও সার্বিকভাবে আমাদের দেশকে নোংরাই বলা চলে। কিন্তু কেউ কি কখনো ভেবে দেখেছে এই ময়লা আবর্জনা কোত্থেকে আসে?

বেশিরভাগ মানুষ দেখে সরকারের দোষ। সরকার ঠিকমতো পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার অভিযান চালায় না।

কিন্তু একা সরকারের পক্ষে কি এটি করা সম্ভব, আমরা সহযোগিতা না করলে?

রাস্তায় পড়ে থাকা চিপসের প্যাকেট, বোতল, টিস্যু, পলিথিন ব্যাগ ইত্যাদি আমরাই ব্যবহার করি। এরপর একটি নির্ধারিত স্থান মানে ডাস্টবিনে না ফেলে যত্রতত্র ফেলে দেওয়ার কাজটাও আমরাই করি।

কিন্তু কখনও পড়ে থাকা ময়লাটা তুলে ডাস্টবিনে ফেলি না। এমন কী অনেকেই বাড়িতে কষ্ট কম করার জন্য সবচেয়ে কাছে জানালাকেই ময়লা ফেলার জন্য ব্যবহার করি। পরদিন এই আমরাই বলি আমাদের দেশটা নোংরা।

চোখ থাকার পরও আমরা আমাদের এই দোষটা কখনোই দেখতে পাই না। নিজের বাসাটা আমরা ঠিকই পরিষ্কার করি কিন্তু ঘরের বাইরেটা পরিষ্কার করার কথা ভাবি না। আমরা ভুলে যাই দেশটা যেমন আমার তেমনি দেশের রাস্তাঘাট, পরিবেশ সবই আমার। আমরা ভুলে যাই যে জিনিসটা রাস্তার বাইরে ফেললাম সেটিও একটি ময়লা। অব্যবস্থাপনা অবশ্যই আছে কিন্তু এক্ষেত্রে আমাদের দোষটাই বেশি।

প্রত্যেকে যদি নিজের হাতের ময়লাটা রাস্তায় না ফেলে ডাস্টবিন, ডাস্টবিন না থাকলে ব্যাগে বা পকেটে রেখে বাড়িতে নিয়ে আসে তাহলে এত ময়লা থাকবে না। এটি খুব কঠিন কাজ নয়। সবাই সবার জায়গা থেকে ঠিক হতে পারলে দেশ এমনিই ঠিক হয়ে যাবে, তখন আর না চেপে রাস্তায় হাঁটতে হবে না।


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

ঝিনাইদহে ১১০ বছরের বৃদ্ধার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

এলাকাবাসী বলছেন, ছবিরন নেছার ৭ ছেলে মেয়ে। মৃত্যুর আগের দিনেও তিনি স্বাভাবিকভাবে পারিবারিক কাজকর্ম ও ঘুরে ফিরে বেড়িয়েছেন।

ঝিনাইদহে মন্দিরে চুরি

চোরে না শোনে ধর্মের কাহিনী। এমনই এক ঘটনা ঘটেছে ঝিনাইদহে।

৭শ টাকায় খাসির মাংস খেতে পারেন ২৭০ টাকায় পেঁয়াজ খেতে কষ্ট কিসের!

ঝিনাইদহের বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২৭০ টাকা দরে।

মন্তব্য লিখুন...

Top