1. jashimsarkar@gmail.com : admin :
  2. mahir1309@gmail.com : star mail24 : star mail24
  3. sayeed.fx@gmail.com : sayeed : Md Sayeed
  4. newsstarmail@gmail.com : Star Mail : Star Mail
‘আমি অসুস্থ হয়ে পড়লে দেড় কোটি মানুষের পাশে কে থাকবে?’ | Starmail24




‘আমি অসুস্থ হয়ে পড়লে দেড় কোটি মানুষের পাশে কে থাকবে?’

ষ্টার মেইল রিপোর্ট :
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৩ এপ্রিল, ২০২০

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেছেন, ‘আমি যদি অসুস্থ হয়ে পড়ি এই দেড় কোটি মানুষের পাশে কে থাকবে? আমার প্রোটেকশন আমাকেই নিতে হবে। আপনি বলেন, কোনও নেতাকে দেখেছেন? আমিই রাস্তায় ছিলাম।’

বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) বিকালে পুরান ঢাকার বংশাল এলাকায় কর্মহীন হয়ে পড়া রিকশাচালকদের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন ডিএসসিসি মেয়র। এ সময় পার্সোনাল প্রটেকটিভ ইক্যুইপমেন্ট (পিপিই) পরেছিলেন তিনি। এ নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে তাকে। তখন তিনি আরও বলেন, ‘করোনাভাইরাস থেকে রাজধানীর দেড় কোটি মানুষকে রক্ষা করতে হবে। তাই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তায় আছি, আগামীতেও থাকবো।’

সাঈদ খোকনের কথায়, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা আপনাদের পাশে আছি। আমাদের নেত্রী ঘোষণা দিয়েছেন, দেশে পর্যাপ্ত খাদ্যসামগ্রী রয়েছে। ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই। শুধু একটি বিষয় বারবার বলছি, আপনারা ঘরে থাকুন, ঘরে থাকুন এবং ঘরে থাকুন। এখন সতর্কতাই আপনাকে ও আপনার প্রিয়জনকে রক্ষা করতে পারে। প্রধানমন্ত্রী আপনাদের সঙ্গে আছেন। তার সৈনিক হিসেবে আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে হলেও রাজপথে আছি এবং থাকবো।’

মেয়রের ভাষ্য, ‘আমরা বিনামূল্যে ৫০ হাজার মানুষকে খাদ্যসামগ্রী দিচ্ছি। আজ নর্থসাউথ সড়কের রিকশাচালকদের মাঝে খাবারের পণ্য বিতরণ করেছি। আমরা লক্ষ্য করেছি, অনেক রিকশাচালক কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। তাই আমরা তাদের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছি।’
এদিকে প্রত্যেক রিকশাচালককে ৫ কেজি চাল, ৫ কেজি আলু, ১ কেজি ডাল, ১ কোজি লবণ ও একটি সাবান দেওয়া হয়েছে।

বিনামূল্যে খাবার বিতরণ কর্মসূচি চালিয়ে নিতে ইতোমধ্যে ৭০টি ওয়ার্ডের তালিকা গ্রহণ করেছে ডিএসসিসি। মেয়র জানান, বৃহস্পতিবার ২০টি ওয়ার্ডে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে গেছে। সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলর ও আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তার সমন্বয়ে এগুলো বিতরণ করা হয়েছে। তারা বাসায় বাসায় খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন।

প্রাথমিক পর্যায়ে ডিএসসিসির দুটি অঞ্চলের ১০টি ওয়ার্ডে পাঁচ হাজার পরিবারকে খাবার দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে অঞ্চল-২ এর ৮, ৯, ১০, ১২ ও ১৩ নম্বর ওয়ার্ড এবং অঞ্চল-৩ এর ২২, ২৩, ২৪, ২৫ ও ২৬ নম্বর ওয়ার্ড। খাদ্যসামগ্রীর প্রতিটি প্যাকেটে ১০ কেজি চাল, ৫ কেজি আলু, ২ লিটার তেল, ২ কেজি ডাল, ১ কেজি লবণ ও ২টি সাবান রয়েছে।




এই বিভাগের আরো সংবাদ