16/09/2019 , ঢাকা

ঝিনাইদহে ভোটের মাঠে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ৯ হাজার সদস্য


প্রকাশিত: 16/09/2019 22:35:42| আপডেট:

ঝিনাইদহে চারটি সংসদীয় আসনে ভোটগ্রহণের প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে নির্বাচনী সামগ্রী। ভোটগ্রহণ নির্বিঘ্ন করতে পুরো জেলা নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ভোটের দিন নাশকতা ঠেকাতে জেলার ছয় উপজেলায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ৯ হাজার ২৬০ জন সদস্য মাঠে থাকবে।

সূত্র জানায়, এবার জেলার চারটি আসনে ভোটকেন্দ্র আছে ৫৭৮টি। আর ভোটগ্রহণ কক্ষ আছে ২ হাজার ৬৩৫টি। জেলায় এবার মোট ভোটার সংখ্যা ১৩ লাখ ৪২ হাজার ৩৩০। এরই মধ্যে ব্যালট পেপারসহ ভোটগ্রহণের অন্যান্য সামগ্রী উপজেলা পর্যায়ে সহকারী রিটার্নিং অফিসারের দপ্তরে পৌঁছে গেছে। এক কথায় সব প্রস্তুতি শেষ, এখন শুধু ভোটগ্রহণ বাকি। ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারেন, সে লক্ষ্যে ৩০০ জন সেনা, ১ হাজার ৫৮৪ জন পুলিশ, ৩০৩ জন বিজিবি, ৭৩ জন র‌্যাব ও ৭ হাজার আনসার সদস্য আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে নিয়োজিত থাকবে। এছাড়া ভোটের দিন ১০টি স্টাইকিং ফোর্স, বিজিবির আটটি টহল দল ও ২০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন।

জেলা পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান জানান, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে পুরো জেলা নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে। যেকোনো প্রকার নাশকতা এড়াতে পুলিশ কঠোর অবস্থানে রয়েছে। কোনো দল বা গোষ্ঠী নাশকতা বা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে তাদের কঠোর হাতে দমন করা হবে।

প্রসঙ্গত, নির্বাচন কমিশনের তফশিল অনুযায়ী রোববার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করা হবে।

আরো পড়ুন: ঝিনাইদহে ছেলের খোঁজে এক মা
ঝিনাইদহে নির্বাচনী সামগ্রী বিতরণ


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

ঝিনাইদহে আ.লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত প্রার্থীর সমর্থকদের বিক্ষোভ

জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ তালিকা ঢাকায় পাঠানোর পরও মাত্র ২ ভোট পাওয়া শরিফুন্নেছা মিকিকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

ঝিনাইদহে বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা

এ জেলায় ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা কমতে শুরু করলেও এ সপ্তাহে আবার বাড়তে শুরু করেছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা সেজে শিক্ষকের অভিনব প্রতারণা

শনিবার সকালে তিনি এসে কাগজপত্র হাতে নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সন্তুষ্টির জন্য খরচের টাকা দাবি করেন।

মন্তব্য লিখুন...

Top